• কৃষ্ণ বলরাম চলিলা তুরিতে
    কৃষ্ণ বলরাম চলিলা তুরিতে যথা যজ্ঞপত্নী রহে। তথা দুই ভাই চলিলা সঘনে দুয়ারে যাইয়া রহে।। দেখিলা ব্রাহ্মণী কৃষ্ণ বলরাম পুলকে পূরিত অঙ্গ। গদ গদ ভাবে কহিতে লাগিলা “কিবা শুভদিন রঙ্গ। আজু বড় শুভ করম ফলিল ভাগ্যের নাহিক সীমা। নয়ন ভরিয়া দেখিলাম আঁখে রামকৃষ্ণ দুই জনা।। কহ কহ কেনে এলে দুই জনে কি হেতু ইহার শুনি।” […] keyboard_arrow_right
  • ঘন শ্যাম শরীর কেলি রস
    ঘন শ্যাম শরীর কেলি রস যমুনাক তীর বিহার বনি। শ্রীদাম সুদাম ভায়া বলরাম সঙ্গে বসুদাম রঙ্গে কিঙ্কিণী।। ঘন চন্দন ভাল কানে ফুল ডাল অঙ্গে গিরি লাল কিয়ে চলনি। লুফিছে পাচনি বাজিছে কিঙ্কিণী পদ নূপুর ঝুনু ঝুনু শুনি।। কত যন্ত্র সুতান কলা রস গান বাজায়ত মান করি সুমেলে। যব বেণু পুরে মৃগ পাখী ঝুরে পুলকে তরু […] keyboard_arrow_right
  • প্রভাত হইল সবাই জাগিল
    প্রভাত হইল সবাই জাগিল গুরুবিত জনা। গৃহ কাজ যত সব সমাধিয়া আন পথে আনাগোনা।। গৃহ মাঝে গিয়া দেখি এল ধেয়া শ্যামের চূড়ার মালা। নীল অতসীর ফুল তাহে ছিল তা দেখি হইল জ্বালা ।। আর কাল জাদ তা দেখি বিষাদ উঠিল বিরহ আগি।। নয়ন অঞ্জন মুছিল তখন হইয়া বিরহ রাগি।। খেলে শ্যাম রায় পথ পানে চায় […] keyboard_arrow_right
  • বদন হেরিয়া গদ গদ হৈয়া
    বদন হেরিয়া গদ গদ হৈয়া কহে বিনোদিনী রাই। শুনলো স্বজনি হেন মনে গণি আন ছলে পথে যাই।। হেরি শ্যামরূপ নয়ন ভরিয়া আঁখির নিমিষ নয়। এক আছে দোষ গুরুজন রোষ তাহাই বাসিয়ে ভয়।। আঁখির পুতলি তারার মণি যেমন খসিয়া পড়ে। শিরীষ কুসুম জিনিয়া কোমল পাছে বা গলিয়া পড়ে।। ননীর অধিক শরীর কোমল বিষম ভানুর তাপে। জানি […] keyboard_arrow_right
  • ব্রজরাজ বালা রাজ পথে আইলা
    ব্রজরাজ বালা রাজ পথে আইলা লইয়া ধেনুর পাল। সঙ্গে সখাগণ ভাই বলরাম ছিদাম সুদাম ভাল।। সুবল সঙ্গাত তার কাঁধে হাত আরোপি নাগর রায়। হাসিতে হাসিতে সঙ্কেত বাঁশীতে এ দুই আঁখর গায়।। এ কথা আনেতে কিছু না জানে সুবল কিছু সে জানে। হৈ হৈ বলি রাজপথে চলি গমন করিছে বনে। গবাক্ষে বদন দিয়া প্রেমময়ী রূপ নিরক্ষণ […] keyboard_arrow_right
  • শুন গো স্বজনি সই
    শুন গো স্বজনি সই। কেমনে রহিব কানু না দেখিয়া নিশি দিশি হেদে রোই। হের দেখ রূপ নয়ান ভরিয়া করেতে মোহন বাঁশী। হাসিতে ঝরিছে মতিম মাণিক সুধা ঝরে কত রাশি।। হেন মনে করি আঁচল থাপিয়া আঁচলে ভরিয়া রাখি। পাছে কোন জনে ডাকা-চুরি দিয়া পাছে লয়ে যায় সখি।। এরূপ লাবণ্য কোথায় রাখিতে মোর পরতীত নাই। হৃদয় বিদারি […] keyboard_arrow_right
  • শুন শুন শুন আমার বচন
    শুন শুন শুন আমার বচন কহিছে মরম সখী। আঁখি আড় কভু না হও তাহার শুনহ কমলমুখি।। রাই বলে বড় আছে ওই ভয় পরাণ না হয় স্থির । মনের বেদনা বুঝে কোন জন এ বুক মেলয়ে চির।। স্বতন্তর নই গুরু পরিজনা তাহারে আছয়ে ডর। যেন বেড়াজালে সফরি সলিলে তেমতি আমার ঘর।। নহে বা শ্যামের অতি কুতূহলে […] keyboard_arrow_right
  • সই কি আর বলিব মায়
    সই কি আর বলিব মায়। তিলে দয়া নাহি তাহার শরীরে এ কথা কহিব কায়।। মায়ের পরাণ এমনি ধরণ তার দয়া নাহি চিতে । এমন নবীন — কুসুম বরণ বনে নহে পাঠাইতে ।। কেমনে ধাইব ধেনু ফিরাইব এ হেন নবীন তনু। অতি খরতর বিষম উত্তাপ প্রখর গগন ভানু।। বিপিনে বেকত ফণী শত শত কুশের অঙ্কুশ তায়। […] keyboard_arrow_right
  • সকল রাখাল ভোজন করিতে
    সকল রাখাল ভোজন করিতে হল অবসান বেলি। নিজ গৃহ যেতে ধেনুর সহিতে দিয়া উঠে জয়তালি।। হেন কালে কানু মনে পড়ে ধেনু শাঙলী ধবলী কোথা। ভোজন বিশেষ করি অভিলাষ লইয়া চলিল তথা।। সেখানে না দেখি শাঙলী ধবলী কোথা গেলা দুটি গাই। এখানে আছিল কোথা তারা গেল শুনহে রাখাল ভাই।। আয় আয় আয় ডাকে যদুরায় অঞ্জলি ভরিয়া […] keyboard_arrow_right
  • সবে অন্ন খায় মাঝে যদুরায়
    সবে অন্ন খায় মাঝে যদুরায় দিছেন সবার মুখে। খাইয়া খাওয়ায় সুখে সুখে তায় তিলেক নাহিক দুখে।। কৃষ্ণ বলরাম শ্রীদাম সুদাম সুবল যতেক সখা। বসিয়া বালক রাখালমণ্ডল তার কিছু নাহি লেখা।। কেহ বলে “ভাই কানাই বলাই বড়ই দয়াল হয়ে। কোথা হতে অন্ন আনিল নবান্ন সকল বালক খায়ে।। এ বড়ি মহিমা যায় নাহি সীমা এ মহীমণ্ডল মাঝ। […] keyboard_arrow_right
অভিসার আক্ষেপানুরাগ কুঞ্জভঙ্গ খণ্ডিতা গীতগোবিন্দ গোষ্ঠলীলা দানলীলা দূতী নৌকাখন্ড পূর্বরাগ বংশীখণ্ড বিপরীত বিলাস বিরহ বৃন্দাবনখন্ড ব্রজবুলি বড়াই বড়াই-বচন--শ্রীরাধার প্রতি মাথুর মাধবের প্রতি দূতী মান মানভঞ্জন মিলন রাধাকৃষ্ণসম্পর্ক হীন পরকীয়া প্রেমের পদ রাধা বিরহ রাধিকার মান লখিমাদেবি শিবসিংহ শ্রীকৃষ্ণকীর্তন শ্রীকৃষ্ণের উক্তি শ্রীকৃষ্ণের পূর্বরাগ শ্রীকৃষ্ণের প্রতি শ্রীকৃষ্ণের মান শ্রীকৃষ্ণের স্বয়ংদৌত্য শ্রীগুরু-কৃপার দান শ্রীরাধা ও বড়াইয়ের উক্তি-প্রত্যুক্তি শ্রীরাধার উক্তি শ্রীরাধার প্রতি শ্রীরাধার প্রতি দূতী শ্রীরাধার রূপবর্ণনা শ্রীরাধিকার পূর্বরাগ শ্রীরাধিকার প্রেমোচ্ছ্বাস সখীতত্ত্ব সখীর উক্তি সামোদ-দামোদরঃ হর-গৌরী বিষয়ক পদ